ভারতে হ্যাকিংয়ের ঝুঁকিতে অ্যাপল ডিভাইস, সতর্ক করলো কর্তৃপক্ষ

0
16
#

ডেস্ক রিপোর্ট

অ্যাপল ওয়াচ এর সুরক্ষায় বড়সড় গাফিলতি। যে সব অ্যাপল ওয়াচ এখনো ওয়াচওএস অথবা কম ভার্সন ব্যবহার করছেন সেই সব ডিভাইসের সুরক্ষায় গাফিলতির হদিস মিলেছে। এই বিষয়ে কেন্দ্রের তরফ থেকে সতর্কবার্তা জারি করা হয়েছে।

#

ভারতের গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, এই সব হ্যাকাররা কোড চালিয়ে সিকিউরিটি বাইপাস করতে পারবেন বলে জানানো হয়েছে। কেন্দ্রের তরফে এই স্মার্টওয়াচ গ্রাহকদের নিজের ডিভাইসে প্রয়োজনীয় আপডেট ইনস্টল করার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। ইতিমধ্যেই সুরক্ষায় এই গাফিলতির কথা সংস্থার ওয়েবসাইটে স্বীকার করে নিয়েছে মার্কিন টেক কোম্পানিটি।

ইন্ডিয়ান কম্পিউটার ইমার্জেন্সি রেসপন্স টিম এক বিবৃতিতে জানিয়েছে যে, সব অ্যাপল ওয়াচ- এ ওয়াচওএস ৮.৭ এর পুরনো ভার্সন চলছে সেই সব ডিভাইসের সুরক্ষায় একের বেশি গাফিলতি পাওয়া গিয়েছে। দেশের সাইবার সুরক্ষার নোডাল এজেন্সি জানিয়েছে, এই সুরক্ষা গাফিলতির রেটিং অনেকটা বেশি। অর্থাৎ স্মার্টওয়াচ থেকেই খুব সহজে হানা দিতে পারবেন হ্যাকাররা।

অ্যাপলএভিডি কম্পোনেন্টের বাফার ফ্লোতে সুরক্ষার এই গাফিলতি ধরা পড়েছে। এ ছাড়াও আরো কয়েকটি কারণে এর সুরক্ষা আপোষ হচ্ছে বলে জানিয়েছে ইন্ডিয়ান কম্পিউটার ইমার্জেন্সি রেসপন্স টিম। কার্নেল, মাল্টিটাচ সহ একাধিক কারণে এই সমস্যা দেখা গিয়েছে।

নোটিফিকেশনে ইন্ডিয়ান কম্পিউটার ইমার্জেন্সি রেসপন্স টিম জানিয়েছে, খুব সহজেই বাড়ি বসে হ্যাকাররা বিশেষ অনুমতির মাধ্যমে টার্গেট ডিভাইসে দখল নিতে পারবে।

ইতিমধ্যেই কোম্পানির সাপোর্ট পেজে অ্যাপল ওয়াচ এর সুরক্ষার কথা স্বীকার করা হয়েছে।

ওয়াচওএস ৮.৭ আপডেটের সঙ্গে যে প্যাচ পাঠানো হয়েছে গ্রাহকদের তা অবিলম্বে ইনস্টল করার পরামর্শ দিয়েছে কেন্দ্র। এখনো যে সব গ্রাহক ওয়াচওএস ৮.৭ এর পুরনো ভার্সন ব্যবহার করছেন তাদের নয়া ভার্সন ইনস্টল করতে হবে। কোম্পানির অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

অ্যাপল ওয়াচ-এ বিভিন্ন ট্র্যাকিং ফিচার রয়েছে যা স্বাস্থ্যের খেয়াল রাখে। সম্প্রতি প্রকাশিত রিপোর্টে জানানো হয়েছে, এক মহিলার শরীরে একটি মারাত্মক টিউমার শনাক্ত করতে সাহায্য করেছে অ্যাপল ওয়াচ।

এই স্মার্টওয়াচের বিশেষ প্রযুক্তির কারণে কিম ডুরকি নামে এক মহিলার জীবন রক্ষা পেয়েছে। পরপর ২ দিন অ্যাপল ওয়াচ-এর থেকে বিপজ্জনক সংকেত পেয়ে ডাক্তারের কাছে ছুটে যান কিম। সেখানে গিয়ে তিনি জানতে পারেন তার হৃৎস্পন্দনে অস্বাভাবিকতা রয়েছে। কারণ হিসাবে ডাক্তার জানান কিমের হৃদপিণ্ডে একটি বিরল টিউমারের উপস্থিতি পাওয়া গিয়েছিল যা হৃদযন্ত্র বন্ধ করে দিচ্ছিল। দ্রুত বর্ধনশীল এই টিউমারের কারণে স্ট্রোক হতে পারে বলে জানিয়েছেন ডাক্তাররা।

 

Facebook Comments

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here