অনিয়ম-দুর্নীতি নিত্যদিনের সঙ্গী: মিজানুর রহমান আজহারী

0
189
#

স্বাধীন বাংলাদেশে কতোটুকু নিশ্চিত করতে পেরেছি? সেটাই আজ বড় প্রশ্ন। সেটাই বড় চ্যালেঞ্জ।স্বাধীনতা অর্জন ও স্বাধীনতা রক্ষা দুটোই বড় চ্যালেঞ্জ।

শুক্রবার মিজানুর রহমান আজহারী তার ফেজবুক স্ট্যাটাস তিনি এ কথা বলেন।

#

তিনি তার স্ট্যাটাসে লিখেছেন হীনমন্যতা, অসহনশীলতা, অনিয়ম আর দুর্নীতি যেন আজও আমাদের নিত্যদিনের সঙ্গী। তাই, স্বাধীনতা অর্জিত হলেও, লড়াই থামেনি আমাদের এখনো।

প্রথম চ্যালেঞ্জ ওভারকাম করতে পারলেও, দ্বিতীয় চ্যালেঞ্জ ওভারকাম করতে গিয়ে এ জাতি হোঁচট খাচ্ছে বারবার। সাম্য, মানবিক মর্যাদা, সামাজিক সুবিচার, নাগরিক অধিকার ও গণতন্ত্র, মোটাদাগে এগুলোই ছিল মহান মুক্তিযুদ্ধের মূল চেতনা।

স্বাধীনতা অর্জন করেও, স্বার্থপরতা ও চিন্তার দাসত্ব থেকে আমরা মুক্তি পাইনি আজও। দিনে দিনে বৈষম্য বেড়েছে।

স্বাধীন ভূখণ্ড মহান আল্লাহ তায়ালার পক্ষ থেকে এক বিরাট নেয়ামত। এটা আমরা অনেকেই টের পাই না। এব্যাপারটি উপলব্ধি করতে হলে খুব বেশিদূর যেতে হবে না।

সম্প্রীতির বাংলাদেশ, মানবিক বাংলাদেশ আর সমৃদ্ধির বাংলাদেশ গড়তে লড়ে যেতে হবে এ জাতিকে শেষ পর্যন্ত। সেই সাথে বেরিয়ে আসতে হবে সকল উস্কানিমূলক ও আক্রমণাত্মক অভ্যন্তরীণ কোন্দল আর হিংসাত্মক মনোভাব থেকে। জাতীয় ঐক্য ছাড়া স্বপ্নের বাংলাদেশ তৈরি করা কি আদৌ সম্ভব? অথচ আমরা বিভাজনে ব্যস্ত।

ভারসাম্যপূর্ণ সমাজ, রাষ্ট্র ও সভ্যতা বিনির্মাণ করতে গেলে জাতি হিসেবে আমাদের সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। একে অন্যের প্রতি সাম্প্রদায়িক তকমা লাগানো এবং কাদা ছোড়াছুড়ি থামাতে হবে। এধরনের সহিংস মনোভাবে সঙ্কট আরো প্রকট হচ্ছে। দরকার সমন্বিত প্রয়াস।

হৃদয়ে বাংলাদেশকে ধারণ করে, রাজনৈতিক বৈচিত্রের মাঝেও দেশ গড়ার এক ও অভিন্ন লক্ষ্য নিয়ে কাজ করে যেতে হবে সবাইকে। মাইলস টু গো..

বাংলাদেশে অবস্থিত প্রায় এক মিলিয়ন রোহিঙ্গা শরণার্থীদের দিকে তাকালেই সেটা বুঝা যায়। আহা! নিজ জন্মভূমি থেকে বিতাড়িত হয়ে ভিনদেশের আশ্রয় শিবিরে দিনাতিপাত করাটা যে কতোটা নির্মম ও বেদনাদায়ক তা কেবল ভুক্তভোগীরাই জানে।

শহীদের রক্তে অর্জিত এ বিজয় যেন লুন্ঠিত না হয় কভু, প্রিয় জন্মভূমি প্রিয় বাংলাদেশকে তুমি শান্তিময় করো প্রভু।

পাশাপাশি, স্বাধীন সার্বভৌম একটি ভূখণ্ডের জন্য ফিলিস্তিন ও কাশ্মীরের ভাইবোনদের দীর্ঘ সংগ্রাম আর করুণ আর্তনাদও আমাদের সে কথা স্মরণ করিয়ে দেয়। তাই, আজকের এ মহান বিজয় দিবসে বিনয়াবনত চিত্তে শুকরিয়া জানাই আল্লাহর দরবারে এবং বিজয়ের কারিগর সকল শহীদের প্রতি জানাই হৃদয় নিংড়ানো দোয়া, ভালোবাসা ও বিনম্র শ্রদ্ধা।

 

Facebook Comments

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here